Ciprocine 500 কিসের ওষুধ। সিপ্রোসিন ৫০০ এর কাজ কি। Ciprocine 500 price in bangladesh

Ciprocin 500mg

Tablet

Ciprofloxacin

Square Pharmaceuticals Ltd.


https://www.himumedical.com/2023/07/ciprocine-500-ciprocine-500-price-in.html


ব্যবহার ঃ-

মূত্রনালীর সংক্রমণ, শ্বাসতন্ত্রের নিম্ন ভাগের সংক্রমণ,চর্ম ও নরম কলার সংক্রম, গনোরিয়া, অস্তি ও সন্ধির সংক্রমণ, পরিপাকতন্ত্রের সংক্রমণ, টাইফয়েড জ্বর, সংক্রামক ডায়রিয়া  ও যৌনবাহিক রোগসমূহে  ও অন্যান্য সংক্রমণ এর জন্য সিপ্রোফ্লক্সাসিন ব্যবহৃত হয়।

যেভাবে গ্রহণ করতে হবে ঃ-

এ জাতিয় ঔষধ মুখে খেতে হয়। আগে ঔষধটি খোলা থেকে ছাড়িয়ে হাতে নিয়ে মুখে দিন তার পর ১ গ্লাস পানি দিয়ে গিলে ফেলুন। ঔষধটি ভেঙে বা গুড়া করে অথবা চুষে খাওয়া  যাবে না।

খাবার নিয়ম ঃ-

সিপ্রোসিন ট্যাবলেটঃ প্রাপ্ত বয়স্ক রোগীদের ক্ষেত্রে সাধারণত সেবন মাত্রা 500-750 মি.গ্রা. দৈনিক দুইবার অথবা চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী গ্রহণ করতে হবে । ক্রিষ্টালইউরিয়া হবার সম্ভাবনার কারণে, সিপ্রোফ্লক্সাসিন দ্বারা চিকিৎসার সময় প্রচুর পানি ও তরল খাবার খাওয়ানো প্রয়োজন।

মূত্রতন্ত্রের সংক্রমণেঃ প্রচলিত মাত্রায় 500 মি.গ্রা. দৈনিক 2 বার অথবা চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী গ্রহণ করতে হবে।

শ্বাসতন্ত্রের সংক্রমণেঃ 500-750 মি.গ্রা. দৈনিক 2 বার অথবা চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী গ্রহণ করতে হবে।

সংক্রমণজনিত ডায়রিয়াঃ 500 মি.গ্রা. দৈনিক 2 বার অথবা চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী গ্রহণ করতে হবে।

চিকিৎসার সময়ঃ 5-10 দিন পর্যন্ত।

ফার্মাকোলজি ঃ-

সিপ্রোফ্লক্সাসিন একটি অত্যন্ত কার্যকর ফ্লোরিনেটেড কুইনোলোন। সিপ্রোফ্লক্সাসিন গ্রাম-পজিটিভ এবং গ্রাম-নেগেটিভ উভয় প্রকার ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে কাজ করে থাকে । ইহা মূলত সালমোনেলা, শিগেলা, ক্যামপাইলোব্যাকটার, নেইসেরিয়া এবং সিউডোমোনাস প্রভৃতি গ্রাম-নেগেটিভ ব্যাকটেরিয়ার বিরদ্ধে কাজ করে থাকে। সিপ্রোফ্লক্সাসিন ট্রেপটোকক্কাস নিউমোনি এবং ট্রেপটোকক্কাস ফিকালিস এর মত গ্রাম-গজেটিভ ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে মাঝারী মানের কার্যকারিতা প্রদর্শন করে থাকে। ইহা ক্ল্যামাইডিয়া এবং কিছু মাইকো-ব্যাকটেরিয়াম এর বিরুদ্ধে কাজ করে থাকে। অধিকাংশ অবতী প্রতি সংবেদনশীল নয়। ইহা মূলত ডিএনএ গাইরেজ এর কাজে বাঁধা দিয়ে কাজ করে থাকে। ডিএনএ গাইরেজ ডিএনএ এর সুপার কয়েল তৈরীতে ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

প্রতি-নির্দেশনা ঃ-

সিপ্রোফ্লক্সাসিন অথবা অন্যান্য কুইনোলোনের প্রতি অতিসংবেদনশীল রোগীদের সিপ্রোফ্লক্সাসিন দেয়া উচিত নয় পরীক্ষা করে এমনটি জানা যায়।

সাবধানতা ঃ-

মৃগী রোগে, যকৃতের অকার্যকারিতা, গর্ভাবস্থায়, স্তন্যদানকালীন সময় এবং শিশুদের সিপ্রোফ্লক্সাসিন সাবধানতার সাথে দিতে হবে। এই ওষুধ গ্রহণকালে মূত্রের অতিরিক্ত ক্ষারকতা দূর করতে হবে এবং প্রচুর পানি খেতে হবে পরীক্ষা করে এমনটি বলা হয়েছে।

পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ঃ-

সিপ্রোফ্লক্সাসিন বমিবমি ভাব, পেটে ব্যথা, ডায়রিয়া, মাথা ব্যথা, ঝিমুনি, ফুসকুড়ি, চুলকানি, আলোক সংবেনশীলতা, রক্তে ইউরিয়া এবং ক্রিয়েটিনিনের পরিমাণ বেড়ে যাওয়া, যকৃতের এনজাইমের সাময়িক গোলযোগ, আর্থ্রালজিয়া এবং মায়ালজিয়া প্রভৃতি পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করতে পারে পরীক্ষা করে এমনটি জানা গেছে।

গর্ভাবস্থায় এবং স্তন্যদানকালে ব্যবহার ঃ-

মহিলাদের গর্ভাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে ব্যবহারের সতর্কতা এবং কার্যকারিতা এখনও প্রতিষ্ঠিত করা হয়ন

রোগীর জন্য ঝুঁকি এবং উপকারের যত্ন সহকারে মূল্যায়ন করার পরে কোনও শিশু বা কৈশোরে ফ্লোরোকুইনোলোনের ব্যবহার বিশেষ পরিস্থিতিতে সীমাবদ্ধ। 

শিশুদের নির্দেশনাগুলির মধ্যে অন্তর্ভূক্ত থাকবে-

১। মাল্টিড্রাগ প্রতিরোধী রোগজীবাণুগুলির দ্বারা সংক্রমণ, যার জন্য নিরাপদ বা কার্যকর বিকল্প নেই বা দ্বিতীয় লাইন হিসাবে যেখানে ১ম লাইন থেরাপি ব্যর্থ হয়েছে।

২। সংক্রমণে যেখানে অন্য কোন কার্যকারী মৌখিক এজেন্ট পাওয়া যায় না এবং প্যারেন্টেরাল থেরাপি সম্ভব হয় না

অন্যান্য ওষুধের সাথে প্রতিক্রিয়াঃ

এ্যান্টাসিড এবং অন্যান্য ক্যাটায়নঃ প্রারম্ভিক পর্যবেক্ষণ দেখা গেছে সিপ্রোফ্লক্সাসিনের সাথে ম্যাগনেসিয়াম এ্যালুমিনিয়াম এ্যান্টাসিড গ্রহণ সিপ্রোফ্লক্সাসিনের শোষন ক্ষমতা অনেক কমে যায়।

থিওফাইলিনঃ সিপ্রোফ্লক্সাসিন ও থিওফাইলিন একই সাথে দেয়া হলে সিরামে সিপ্রোফ্লক্সাসিনের ঘনত্ব অনেকটা বেড়ে যায়।

অন্যান্যঃ রিফামপিসিন সিপ্রোফ্লক্সাসিনের বিপাকে সহায়তা করে সিরামে এর মাত্রা কমিয়ে দেয় এবং  সেক্ষেত্রে  ওষুধের কার্যকারিতা নষ্ট হয়ে যায়।

সিপ্রোফ্লক্সাসিনের সাথে ক্লোরামফেনিকল গ্রহণ করলে এক অপরের প্রতিবন্ধক দেখা দিতে পারে।

অতিমাত্রাঃ

সিপ্রোফ্লক্সাসিনের অত্যধিক মাত্রার ফলস্বরুপ রেনাল বিষক্রিয়া হতে পারে। অতিরিক্ত মাত্রার চিকিৎসার মধ্যে বমি বমি ভাব বা গ্যাস্ট্রিক ল্যাভেজের মাধ্যমে পেট ফাঁকা করার পাশাপাশি ড্রাগের শোষণ হ্রাস করার জন্য ম্যাগনেসিয়াম, অ্যালুমিনিয়াম বা ক্যালসিয়ামযুক্ত অ্যান্টাসিডগুলির পরিচালনা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

সংরক্ষণঃ

আলো ও আর্দ্রতা থেকে দূরে, ৩০° সে. তাপমাত্রার নিচে শুষ্ক ও ঠান্ডা স্থানে সংরক্ষণ করুন। 

সিপ্রোসিন ট্যাবলেটঃ প্রতিটি বাক্সে রয়েছে 3 × 10 টি ট্যাবলেট অ্যালু-পিভিসি রিস্টার প্যাকে।

দামঃ

সিপ্রোসিন ট্যাবলেট প্রতি পিসের দাম 15.05 টাকা।


                     [ সকল ওষুধ শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন ]

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post